ভিন্ন স্বাদের বই সেনেকার ‘অন দ্য শর্টনেস অব লাইফ’

Reading Time: 2 minutes

বই রিভিউঃ অন দ্য শর্টনেস অব লাইফ- সেনেকা
অনুবাদকঃ সাবিদিন ইব্রাহিম।
প্রকাশকঃ ঐতিহ্য
গায়ে লিখিত মূল্যঃ ১৫০ টাকা।

বইটির উৎসর্গ পাতা পড়েই বুঝলাম ভিন্ন স্বাদের কিছু পড়তে চলেছি। লেখক লিখেছেন ‘আমি আমাকে খুব ভালোবাসি এজন্য আমার জীবনের নির্ধারিত সময়কে সর্বোত্তম ব্যবহার করতে চাই’ নিজের সাথে সাথে লেখক পাঠককেও উৎসর্গ করেছেন যারা সীমিত সময়কে কাজে লাগিয়ে অসীমের সন্ধান পেতে চায়।

সরাসরি জীবনকে ভিন্নভাবে দেখার, ভাবনাকে ভিন্নভাবে ভাবার জন্মদাত্রী দর্শনকে মৌলিকভাবে দেখার সুযোগ পেলাম রোমান দার্শনিক লুকিউস আন্নাউস সেনেকার লেখা বইয়ের এই অনুবাদে।


দর্শন সম্পর্কে জানার লোভ আমায় বহুদিন তাড়িত করেছে। মিথলজি, ইতিহাস, জীবনী পড়ে আমি নানাভাবে এই অমৃতের স্বাদ নেবার চেষ্টা করেছি। শিক্ষাবিজ্ঞানের ছাত্রী হিসেবে শিক্ষার নানা দর্শন পড়তে হয়েছে। কিন্তু সরাসরি জীবনকে ভিন্নভাবে দেখার, ভাবনাকে ভিন্নভাবে ভাবার জন্মদাত্রী দর্শনকে মৌলিকভাবে দেখার সুযোগ পেলাম রোমান দার্শনিক লুকিউস আন্নাউস সেনেকার লেখা বইয়ের এই অনুবাদে।

এই বইয়ের প্রধান বিষয় হচ্ছে অমৃত ‘জীবন’ এবং এর সীমাবদ্ধ ‘গণ্ডী’। তারাশঙ্কর তার কবি উপন্যাসে আক্ষেপ করেছেন, হায় জীবন এত ছোট কেনে? এই ভুবনে? জীবন কি ছোট? এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজেছেন সেনেকা। দার্শনিকদের প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে হয়।

সেনেকার মতে জীবন ছোট নয়। বরং আমরা আমাদের সময়ের বড় অংশই অপচয় করে ফেলি। জীবনকে এতভাবে অপচয় করে ফেলি যেন আমাদের অফুরন্ত ভান্ডার দেয়া হয়েছে। আশেপাশের কতজনকে দেখি যে, নিজেদের অর্থকড়ি দেখভালের সময় হাড়কিপ্টের মতো আচরণ করে, সময় ব্যয় করার ক্ষেত্রে বেহিসেবি থেকে যায়, অথচ এ ব্যাপারটিতেই সবচেয়ে কিপটে হওয়ার কথা ছিলো!

এক অজ্ঞাতনামা কবির কথা উল্লেখ করে সেনেকা বলেন, জীবনের যে অংশ আমরা সত্যিকারভাবে বাঁচি তা আসলে খুবই ছোট। অথবা, মহাকবি ভার্জিলের জর্জিকস কাব্য থেকে বললে, হতচ্ছাড়া মানুষ, তোমাদের সুন্দরতম দিনগুলো কত দ্রুত ফুরিয়ে যায়!
সময়ের লাগাম টেনে ধরতে পারলেই সময়কে কাজে লাগানো যায়, যে সময় সব কিছু বিস্মৃত করে সেই সময়ে সগৌরবে বেঁচে থাকা যায়, মৃত্যুর পরেও।

অমৃতভান্ডার এই বই, মনে হয় প্রতিটি লাইনই আমিও লিখে দেই সবাই পড়ুক। কিন্তু বইয়ের পর্যালোচনায় বই লিখে ফেলা যায় না। তাই সামান্যতে সীমাবদ্ধ থাকি।

অমৃতভান্ডার এই বই, মনে হয় প্রতিটি লাইনই আমিও লিখে দেই সবাই পড়ুক। কিন্তু বইয়ের পর্যালোচনায় বই লিখে ফেলা যায় না।

এই বইয়ে সেনেকার কথা, স্টোয়িকবাদ সব কিছু থেকে অমৃত পাবার আছে, তবে সব চেয়ে বেশী আছে লেখকের জীবন পাল্টে দেয়ার মতো ২৫ টি বই এই অনুচ্ছেদে।তার এই সুমিষ্ট,সুপাঠ্য তালিকা দেখে আমি নিজের জন্য ৪০+ বইয়ের নতুন তালিকা করেছি বেঁচে থাকলে যেগুলোর স্বাদ নিবো।
অনুবাদক সাবিদিন ইব্রাহিমের সাফল্যকে বিস্তারিত বলতে পারবো না, শুধু এটুকু বলতে পারবো এই বই পড়ার পর, নিজেকে সক্রেটিস, কনফুসিয়াস, লাও জু, কাহলিল জিবরানসহ অর্ধশত দার্শনিকের দর্শন পড়ার জন্য মনটা আকুলি বিকুলি করবে। বিশ্বের সেরা মনীষীদের ছাত্র হওয়ার ইচ্ছাকে কিছুতেই দমিয়ে রাখা যাবে না আর।

অনুবাদক বলেছেন, দেশ ও বিশ্বের বাসিন্দা হিসেবে আমি প্রতিটি প্রাণিরই মঙ্গলাকাঙ্খী, নিজে উপকৃত হওয়ায় অন্যের মাঝেও সুখবার্তা ছড়িয়ে দিতে চাই। সে ক্ষেত্রে তিনি সফল, কারণ ভিন্নরকম জানার আনন্দে পাঠক এক অপার সুখানুভূতিতে ভাসতে থাকবে।
অবশ্যপাঠ্য একটি বই!

সানজিদা আয়েশা সিফা
এমফিল গবেষক, শিক্ষা ও গবেষনা ইনস্টিটিউট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

@fb: Sanjida Shifa Ayesha

Spread the love

Related Posts

One Response

Add Comment

error: Content is protected !!