ক্ষমতা ভাষাকে গুরুত্বপূর্ণ করে

Reading Time: 2 minutes

ক্ষমতা ভাষাকে গুরুত্বপূর্ণ করে, মহিমাণ্বিত করে। একটি ছোট্ট শহরের ভাষা ল্যাটিন ইউরোপের সবচেয়ে প্রভাবশালী ভাষায় পরিণত হয়েছিল। যে ইংরেজি ভাষা এককালে ছোটলোক ও মহিলাদের ভাষা ছিল সেটা আন্তর্জাতিক ভাষা হয়ে দাড়ায়।

ইতালির রোমের ছোট্ট একটা কৃষিজীবি সম্প্রদায়ের ভাষা, যে ভাষাটা প্রাথমিকভাবে আবার প্রতিবেশী এতরুস্কানসদের ভাষা দ্বারা খুব প্রভাবিত ছিল সেটা এত ক্ষমতাবান ভাষা হয় কীভাবে? এটা কীভাবে ক্ষমতা ও রাজকার্যের সাথে জড়িত বিভিন্ন ভূখণ্ডের মানুষের ভাষা হয় সেটা খুবই তাৎপর্যপূর্ণ ঘটনা।

খ্রিস্টের জন্মের পাঁচ-সাতশো বছর আগে ইতালিয়ান পেনিনসুলার ছোট্ট একটি অঞ্চল ছিল রোম। কৃষিজীবি সম্প্রদায় থেকে যখন আশেপাশের ছোট্ট ছোট্ট অঞ্চলগুলো দখল শুরু করে তখন বিজিত অঞ্চলে তাদের ভাষাটাকেও নিয়ে যাচ্ছিল। আগে যেহেতু ভাড়াটে সেনা নেওয়ার চল ছিল, ভিন্ন জাতি ও ভাষার ভাড়াটে সেনারা রোমান সেনাদলে যুদ্ধ করতো। ক্ষমতার শীর্ষস্থানীয় লোকদের ভাষা যেহেতু ল্যাটিন তাই সেনারা সেই ভাষা রপ্ত করতে চাইতো। সেনারা যুদ্ধ শেষে নিজ এলাকায় ফিরে গেলেও সাথে নিয়ে যেতো ল্যাটিন ভাষা। আর রোমানরাও বিভিন্ন ছোট্ট ছোট্ট রাজ্য জয় করে এক সময় পুরো ইতালি করতলে নিয়ে আসে।

খ্রিস্টপূর্ব ২৭০ এর দিকে পুরো ইতালিয়ান পেনিনসুলা রোমের অধীনে চলে আসে। এবার সাগরের অপর পাড়ে উত্তর আফ্রিকা উপকূলের সমৃদ্ধ জনপদ কার্থেজের দিকে নজর যায় রোমের। বর্তমান কালের তিউনেসিয়ায় অবস্থিত কার্থেজ ছিল নৌপথের একচ্ছত্র অধিপতি, তাই ব্যবসা বাণিজ্য নিয়ন্ত্রণ করতো কার্থেজ। ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলের সবচেয়ে সমৃদ্ধ ও ক্ষমতার ভরকেন্দ্র ছিল কার্থেজ। উদীয়মান শক্তি রোম তার নতুন গজানো শিংয়ের ক্ষমতা টেরাই করার জন্য কার্থেজের সাথে টক্কর দেওয়ার খায়েশ দেখায়। দীর্ঘ এক শতাব্দীকাল দুই শক্তির মধ্যে অনেকগুলো লড়াই সংগঠিত হয় যেগুলো পিউনিক যুদ্ধ নামে পরিচিত। কানাই যুদ্ধ সহ বেশ কয়েকটি যুদ্ধে কার্থেজ জয়ী হলেও এই সিরিজ যুদ্ধ শেষ হয় রোমের জয় এবং কার্থেজের পতনের মাধ্যমে। (এ নিয়ে বিস্তারিত লিখেছি সান জুর দ্য আর্ট অব ওয়ার এর অনুবাদের ভূমিকায়)

কার্থেজের মত বড় শক্তিকে পরাজিত করা ছিল রোমের জন্য সবচেয় বীরত্বেরর ঘটনা যা তাদের আত্মবিশ্বাসকে কয়েকগুণ বাড়িয়ে দিয়েছিল। আঞ্চলিক শক্তি থেকে বৈশ্বিক সুপার পাওয়ার হতে উসকানি দিয়েছিল। তারপর রোম সাম্রাজ্যের ঝাণ্ডা যেদিকে গিয়েছে সেদিকে সাথে গিয়েছে রোমানদের ভাষা, ল্যাটিন। বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাবান সাম্রাজ্য হওয়ার সাথে সাথে ল্যাটিনও দাড়িয়েছিল ক্ষমতার ভাষা হিসেবে, ক্ষমতাবান ভাষা হিসেবে। মানুষ ক্ষমতার সুবিধা ভোগ করার জন্য, ক্ষমতাবান হওয়ার জন্য ক্ষমতাবান ভাষা রপ্ত করতে লেগে যায়। আর একটি ক্ষুদ্র অঞ্চলের ভাষা, চাষাবোষাদের ভাষা ক্ষমতার ভাষা হয়ে দাড়ায়, শিল্প সাহিত্যের ভাষা হয়ে দাড়ায়, জ্ঞান বিজ্ঞানের ভাষা হয়ে দাড়ায়।

ল্যাটিন যেভাবে ক্ষমতার ভাষা হিসেবে দাড়িয়েছে বা ক্ষমতার সংযোগের কারণে প্রভাবশালী ভাষা হিসেবে দাড়িয়েছে উত্তর আমেরিকা ও দক্ষিণ এশিয়ায় ইংরেজি, দক্ষিণ আমেরিকায় স্পেনিশ, আফ্রিকায় ফরাসী ক্ষমতাবান ভাষা, ক্ষমতার ভাষা হয়ে দাড়ায়।

লাতিন ভাষার অন্দরমহল ও বাহিরের দুনিয়া নিয়ে একটি অসাধারণ কেতাব হলো তরে ইয়নসন এর ‘এ ন্যাচারাল হিস্ট্রি অব ল্যাটিন’। এটা বাংলায় তর্জমা করে মহার্ঘ সাধন করেছেন শ্রদ্ধাস্পদ জি এইচ হাবীব! এই মহৎ কর্ম সম্পাদনের জন্য বাংলাভাষী জনতার পক্ষ থেকে অসীম কৃতজ্ঞতা!

Spread the love

Related Posts

Add Comment

error: Content is protected !!