বই আলোচনা: ‘গঙ্গাঋদ্ধি থেকে বাংলাদেশ’

Reading Time: 3 minutes

প্যারিস রিভিয়্যুর একটি সাক্ষাতকারে পাবলো নেরুদাকে প্রশ্ন করা হয়েছিল উনি কি ধরণের বই পড়েন। উনি গোয়েন্দা গল্পের ভীষণ ভক্ত ছিলেন। প্রথমে যথারীতি গোয়েন্দা গল্পের কথা বলেন। আর কি পড়েন এই প্রশ্ন করলে বলেন- “I am a reader of history, especially of the older chronicles of my country. Chile has an extraordinary history.”  ইতিহাসের সাথে ভালো পরিচয় না থাকলে, দেশ-জাতি ও সভ্যতার ইতিহাসের সাথে পরিচয় না থাকলে রাজনীতি বলুন আর সাহিত্য বলুন কোন ক্ষেত্রেই অবদান রাখা যায় না।

রাষ্ট্র কখনো সাগরের বুকে একটি দ্বীপের মতো হঠাৎ জেগে ওঠে না। টলেমির লেখায় জানা যায়, গঙ্গা-মোহনার সব অঞ্চল জুড়েই গঙ্গারিড়ীরা বাস করে। তাদের রাজধানী গঙ্গা খ্যাতিসম্পন্ন এক আন্তর্জাতিক বন্দর। এখানকার তৈরি সূক্ষ্ম মসলিন ও প্রবাল-রত্ন পশ্চিম দেশে রপ্তানি হয়। তাদের মতো পরাক্রান্ত জাতি ভারতে আর নেই।

বাংলাদেশ ও বাঙালী জাতির ইতিহাস জানার জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ বই হচ্ছে মুহাম্মদ হাবিবুর রহমানের ‘গঙ্গাঋদ্ধি থেকে বাংলাদেশ’। বাংলা একাডেমী বইটি প্রকাশ করে ২০১৩ এর ফেব্রুয়ারিতে। বইটির দুইটি ভাগ। প্রথম ভাগে একেবারে প্রাচীন বঙ্গ, পাল, সেন, তুর্কি, পাঠান, মোগল ও ইংরেজ শাসন থেকে শুরু করে একেবারে ১৯৭১ এসে থামলেন লেখক। আর দ্বিতীয় ভাগে শেখ মুজিবুর রহমান দিয়ে শুরু করে বাংলাদেশের বিভিন্ন রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান, এর সংকট ও সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা করা থেকে শুরু করে অতি সাম্প্রতিক বিভিন্ন সংকট নিয়ে আলোচনা করেছেন। প্রথম ভাগটি যতটা না ভালো হয়েছে দ্বিতীয় ভাগটি ততটা খারাপ হয়েছে। প্রথম ভাগটিতে আমরা একজন পরিশ্রমী ইতিহাসের ছাত্রকে দেখতে পাই যিনি নিজে ইতিহাসের জগতে ভ্রমণ করেছেন প্রবল আনন্দ, উচ্ছাস নিয়ে এবং তার সে অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন পাঠকদের সঙ্গে। ৫২ পৃষ্ঠার সে অংশটি পড়া পাঠকের জন্য লাভজনক হতে পারে।

দ্বিতীয় ভাগে কয়েকটি অধ্যায় কেবল পত্রিকার কলাম মনে হয়েছে এবং প্রকাশক সব জোড়াতালি দিয়ে বাড়িয়ে বইয়ের আকার ও অভয়ব বাড়িয়েছেন। বেশিরভাগ প্রবন্ধে বিভিন্ন পত্রিকার খবরের শিরোনাম এবং পত্রিকার তথ্য উপাত্ত ব্যবহার করে মত দেয়ার চেষ্টা করেছেন। এজন্য প্রথম ভাগটি যতটাই না সুখপাঠ্য ছিল দ্বিতীয় ভাগটি তার উল্টো। প্রথমভাগটিতে নির্মোহভাবে ইতিহাসের বিভিন্ন গল্প তুলে ধরতে পারলেও দ্বিতীয় ভাগটিতে ততটা পারঙ্গমতার পরিচয় দিতে পারেন নাই বলে মনে হয়েছে।

একবাক্যে যদি বইটির ভালো দিক নিয়েই বলি তাহলে বলতে হবে মাত্র অর্ধশত পৃষ্ঠার একটি বই পড়ে আপনি বঙ্গ ও বঙ্গদেশের মানুষের ইতিহাস জানতে চাইলে এ বইটির প্রথম ভাগটি পড়া যেতে পারে।

তাছাড়া বইটি পড়ার মাধ্যমে আমরা আজীবন পরিশ্রমী ছাত্র মুহাম্মদ হাবিবুর রহমানের প্রতি সম্মান প্রদর্শনও হতে পারে। বাংলাদেশ রাষ্ট্রের জন্মপ্রক্রিয়ায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করা থেকে শুরু করে স্বাধীন বাংলাদেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ও দায়িত্বশীল পদে থেকেও জীবনব্যপী জ্ঞানসাধনায় রপ্ত থেকে আমাদের তরুণ প্রজন্মকে অনেক বড় চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছেন। এই ভদ্রলোক জীবনের শেষ দশকটিতে চায়না ভাষা শিখে সে ভাষার অসংখ্য কবিতা অনুবাদ করে সময়কে পুরোপুরি কাজে লাগানোর উদাহরণ দাড় করিয়ে দিয়ে গেছেন। এ যেন আশি বছরের হবসের ইলিয়াদ অনুবাদ করার প্রকল্প হাতে নেয়ার মত ব্যাপার।

মজার ব্যাপার হলো ‘গঙ্গাঋদ্ধি থেকে বাংলাদেশ’ এর প্রথম ভাগে লেখক যখন মাৎস্যান্যায় পরবর্তী পাল সাম্রাজ্যের উত্থান ও পতন নিয়ে কথা বলছিলেন তখন মানুষ নিয়ে হবসের সেই বিখ্যাত উক্তি যে মানুষ প্রকৃতিগতভাবেই ‘nasty, brutish and short’ পদত্রয়ীর বাংলা ‘কদর্য, ক্রুর ও খর্ব’ ব্যবহার করেছেন।

উল্লেখ্য গোপালের নির্বাচনটি গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচনের আদি নিদর্শনের একটি।

সেন, তুর্কি, পাঠান, মুগল শাসনামলে বিভিন্ন রাজা-রাজরাও উত্থান পতনের রোমাঞ্চকর কাহিনী আপনাকে শিহরিত করবে। কিভাবে দাশ রাজা হয়ে যান, ছেলে বাবাকে খুন করেন, ভাই ভাইকে খুন করে ক্ষমতায় বসেন; ক্ষমতার লড়াইয়ের সেইসব ক্ল্যাসিকাল গল্প আপনাকে টানতে পারে।

বিভিন্ন সময়ে এই ভূখন্ডের শাসকদের গৌরবময় কীর্তি আপনাকে গর্ব অনুভব করতে উসকানি দেবে আবার শাসন শোষণ ও পরাজয়ের ইতিহাস আপনাকে কষ্ট দেবে। ইতিহাসের ধর্মই এটা। এটা আপনাকে একেবারে নির্ভেজাল সুখ দেবে না আবার শুধু কষ্টই দেবে না। বর্তমানকে শক্ত পাটাতনের উপর দাড় করানোর জন্য আমাদেরকে ইতিহাসের ভিত্তিমূলের উপর দাড়াতে হয়।

ইতিহাস চর্চার সময় আমাদের মনে রাখতে হবে আমাদের ইতিহাস, এই ভূখণ্ডের ইতিহাস, এই ভূখণ্ডের মানুষের ইতিহাস কয়েক দশকের নয়, কয়েক শতকের নয় বরং কয়েক হাজার বছরের। আমাদেরকে সেই ইতিহাসের সাথে পরিচিত হতে হবে।

মুহাম্মদ হাবিবুর রহমানের ‘গঙ্গাঋদ্ধি থেকে বাংলাদেশ’ আপনাকে সে পথে অনেকটা তেল সরবরাহ করবে যেটা ব্যবহার করে আপনি অনেকদূর এগুতে পারবেন।

 

সাবিদিন ইব্রাহিম

sdibrahim385@gmail.com

 

 

Spread the love

Related Posts

Add Comment

error: Content is protected !!