লুঙ্গি পরেই পুরা বিশ্ব ঘোরেন যারা

Reading Time: 5 minutes

লুঙ্গি বাঙ্গালী ছেলেদের কাছে খুব আরামের পোষাক। তবে সব অনুষ্ঠানে এটা পরতে দেখিনা । ঘুমানোর সময়, বাসার মধ্যে কিংবা পাড়ার চায়ের দোকান পর্যন্ত লুঙ্গি চলে যায় ইজিলি । কিন্তু ভার্সিটিতে , অফিসে, বিয়ে বা কোনো সামাজিক অনুষ্ঠানে লুংগি পরে যাওয়ার কথা ভাবিনা।

তবে কিছু সিরিয়াস লুঙ্গিপ্রেমী আছেন, যারা সব অনুষ্ঠানেই লুঙ্গি পরে যাচ্ছেন নিয়মিত। বাংলাদেশের জাতীয় পোষাক হিসেবে সব ধরনের প্রোগ্রামে লুঙ্গি কে গ্রহনযোগ্য পোষাক হিসেবে পপুলার করার চেষ্টা করছেন তারা।

চলুন, এমনই কিছু মানুষের কথা জানা যাক।

১। ফরহাদ মজহার । কবি এবং রাজনৈতিক কলামিস্ট।

সব সময় লুঙ্গি পরে বিভিন্ন প্রোগ্রামে এটেন্ড করেন । এই লুঙ্গি নিয়ে মাঝে মাঝেই তার অনেক সমস্যা হয় । ২০০৯ সালের ২রা অক্টোবর তাকে ঢাকা ক্লাবের দারোয়ান ঢুকতে দেয়নি লুঙ্গি পরার কারনে । তারপরেও তিনি লুঙ্গি ত্যাগ করেননি । লুংগির অধিকার আদায়ের জন্য সংগ্রাম করে যাচ্ছেন ।

This image has an empty alt attribute; its file name is 1.-forhad-2.jpg


২০১৭ সালের ৪ জুলাই তিনি রহস্যজনকভাবে নিখোজ হন । ১৮ ঘন্টা পরে তাকে পাওয়া যায় খুলনায় । সে সময়েও তিনি লুঙ্গি পরে ছিলেন। টিভিতে এই ঘটনা নিয়ে অনেক আলোচনা হয়। তার লুঙ্গি পরার অভ্যাস সম্পর্কে তখন অনেকে জানতে পারেন

This image has an empty alt attribute; its file name is 1.forhad-1.jpg



২। অরুপ রাহী। মিউজিশিয়ান , রাজনৈতিক কর্মী এবং নোবেল বিজয়ী


টিভিতে তাকে বেশি দেখা যায় গায়ক বা গানের প্রোগ্রামের উপস্থাপক হিসেবে । এই সকল প্রোগ্রামে , কিংবা দেশের বিভিন্ন জায়গার লাইভ কনসার্টে তিনি লুঙ্গি পরেই পারফর্ম করেন । কোমরে তিনি হাজীদের মত করে একটা বেল্ট ব্যবহার করেন । সেই বেল্ট লুঙ্গিকে শক্ত করে বেধে রাখে । একই সাথে বেল্টের পকেটে তিনি মোবাইল ,টাকা,হেডফোন,চাবি এবং অন্যান্য টুকিটাকি জিনিস রাখতে পারেন ।

This image has an empty alt attribute; its file name is 2.rahi_.jpg



মিউজিক ছাড়াও পলিটিকাল, সোস্যাল বিষয়ে অরুপ রাহী অনেক সিরিয়াস কাজ করেন। CBS ( center for Bangladesh Studies) নামে একটি গবেষণামূলক সংগঠন চালান তিনি। ২০১৭ সালে শান্তিতে নোবেল পুরষ্কার দেওয়া হয় পারমানবিক অস্ত্র বিরোধী ৪৬৮ টা সংগঠনের একটি জোট, ICAN (International campaign to abolish Nuclear weapon) কে। ICAN এর অন্তর্গত ৪৬৮ টা সংগঠনের মধ্যে অন্যতম ছিল CBS.

This image has an empty alt attribute; its file name is 3.rahi-2.jpg



ডক্টর ইউনুস ২০০৬ সালে নোবেল প্রাইজ নিতে গিয়েছিলেন গ্রামীণ চেকের ফতুয়া এবং পাজামা পরে। ডক্টর ইউনুসের মত অরুপ রাহীও যদি সিংগেল ব্যক্তি হিসেবে নোবেল পেতেন, তাহলে হয়তো নোবেল মঞ্চে আমরা খাটি বাঙালি পোষাক লুঙ্গি পরেই তাকে নোবেল নিতে দেখতাম।


৩। সৈয়দ আবুল মকসুদ। সাংবাদিক, লেখক, কলামিস্ট

২০০৩ সালে আমেরিকা ইরাক আক্রমন করলে ব্যক্তিগত প্রতিবাদ হিসেবে মহাত্মা গান্ধীর অহিংস আন্দোলন শুরু করেন । এই পন্থায় প্রতিবাদ হিসেবে তখন থেকে তিনি সাদা কাপড় পরছেন। সাধারনত , শরীরের উপরের অংশে একটি সাদা চাদর , এবং নিচের অংশে লুঙ্গি/ধুতি জাতীয় একটি পোশাক পরেন । অন্য কোনো পোষাকে তাকে গত ১৫ বছরে দেখা যায়নি । এই ধুতি পরেই তিনি মিছিল মিটিং সেমিনার মানব বন্ধন সব করেন ।

This image has an empty alt attribute; its file name is 4.moksud.jpg





৪। মাওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী। রাজনীতিবিদ, আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা


সাদা লুঙ্গি , খদ্দরের পাঞ্জাবি আর তালপাতার আশের টুপি ছিল মাওলানা ভাসানীর প্রিয় পোষাক। এই পোষাক পরেই তিনি দেশে বিদেশে যেতেন, বিভিন্ন সভা সমিতিতে অংশ নিতেন। ”ভাসানী যখন ইউরোপে’‘ নামক খোন্দকার মোহাম্মদ ইলিয়াস এর একটি বইয়ে তার লুঙ্গি পরে ইউরোপের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে ঘোরার বর্নণা পাওয়া যায়। ১৯৭৬ সালে তিনি মারা যান।


This image has an empty alt attribute; its file name is 6.vashani.jpg



৫। সামসুদ্দিন আহমেদ এছাক। মুক্তিযোদ্ধা , সাবেক এমপি , শ্রমিকনেতা এবং গীতিকার

১৯৯১ থেকে ২০০১ পর্যন্ত প্রতিবার নরসিংদী-১ আসলে বিএনপির সংসদ সদস্য ছিলেন সামসুদ্দিন আহমেদ এছাক । বিভিন্ন অনুশঠানে তিনি লুঙ্গি পরে যেতে পছন্দ করতেন। এমনকি জাতীয় সংসদেও তিনি লুঙ্গি পরেই যেতেন বলে শোনা যায়। ২০০৫ সালে তিনি মারা যান।

This image has an empty alt attribute; its file name is 12-shamsu-mp-norshingdi.jpg




৬। শায়খ আব্দুর রাজ্জাক বিন ইউসুফ। ধর্মীয় বক্তা।

তিনি দেশে বিদেশে লুঙ্গি পরেই বিভিন্ন অনুষ্ঠাণ করেন । লুঙ্গির কারনে দুবাই এয়ারপোর্টে একবার ঝামেলায় পড়েছিলেন বলেও জানিয়েছেন এই ভিডিওতে

এছাড়াও আরো কিছু ধর্মীয় বক্তা লুঙ্গি পরেই ওয়াজ করেন নিয়মিত।

This image has an empty alt attribute; its file name is 11.-razzak-bin-yousuf.jpg




৭। শাহরিয়ার হোসেন অনিক । শিক্ষার্থী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

২০১৭ সালের ১১ই মে ঢাকা ভার্সিটির ইন্টারন্যাশনাল রিলেশন বিভাগের ছাত্র শাহরিয়ার হোসেন অনিক সম্পর্কে একটি রিপোর্ট ছাপা হয় প্রথম আলো পত্রিকায় । সেখান থেকে জানা যায়, তিনি সব সময় ক্লাস করেন লুঙ্গি পরে । ক্যাম্পাসে আড্ডা দেন লুঙ্গি পরে । ভার্সিটির টিচাররা প্রথম দিকে বিরক্ত হত, তবে এখন আর কিছু বলেনা । একচুয়ালি ইউনিভার্সিটিতে ড্রেস কোড বলে কিছু নাই । ছেলে বা মেয়ে কাউকেই কোনো টিচার কখনো বলতে পারেন না যে , তুমি এই ড্রেস পরে এসোনা ।

This image has an empty alt attribute; its file name is 7c37292047b8e8338b09b14426a10660-5913fb222de34.jpg




৮। এর বাইরে ইরেগুলারলি অনেকেই বিভিন্ন সময়ে লুংগিকে ডিসেন্ট পোষাক হিসেবে এস্টাবলিশ করতে চেয়েছেন । ২০১৩ সালে ”চেন্নাই এক্সপ্রেস” নামক একটি হিন্দি সিনেমা রিলিজ হয় । সেই সিনেমার ”লুঙ্গি ড্যান্স” গানটা খুবই পপুলার হয়েছিল । পরবর্তীতে বিভিন্ন বিয়ে, গায়ে হলুদ, পিকনিক, ভার্সিটির র‍্যাগ ডে বা এই জাতীয় অনুষ্ঠানে তরুণদের মধ্যে লুঙ্গি পরা বেশ পপুলার হয়েছিল। ছেলেদের পাশাপাশি অনেক মেয়েকেও এই সব প্রোগ্রামে লুঙ্গি পরতে দেখা গেছে।

This image has an empty alt attribute; its file name is 8.1554906689.jpg
This image has an empty alt attribute; its file name is 7.lungi_.jpg



২০১৩ সালেই ,গুলশান সোসাইটি রিক্সাওয়ালাদের প্রতি এক আইন জারি করেছিল। বলেছিল, কেউ লুঙ্গি পরে রিক্সা চালাইতে চালাতে পারবেনা। তাদের সেই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিভিন্ন অনলাইন গ্রুপ (যেমন -মজা লস, বিডি সাইক্লিস্ট, অভয়ারন্য ইত্যাদি) দল বেধে ”লুঙ্গি মার্চ” করে গুলশানে ঢোকার চেষ্টা করেছিল ।

পুলিশের বাধায় সে কর্মসূচী অবশ্য ।সফল হয়নি, তবে সে সময় অনেকেই বিভিন্ন রেস্টুরেন্টে লুঙ্গি পরে হাজির হয়ে প্রতিকী প্রতিবাদ করতেন। লুঙ্গি পরে বিভিন্ন জায়গায় যাওয়ার অনেক দৃশ্য ফেসবুকে চোখে পড়ত তখন ।

অবশ্য এই লুঙ্গি পরা গুলো সাময়িক। ফরহাদ মজহার , অরুপ রাহী, সৈয়দ আবুল মকসুদ কিংবা শাহরিয়ার অনিকের মত সব সময় সব জায়গাতেই লুঙ্গি পরে যেতে চায়নি কেউ । অন্তত আমার জানা নেই । আপনি জানেন নাকি এমন কারো কথা, যে সব জায়গায় লুঙ্গি পরেই যাতায়াত করে? কমেন্টে জানান তাহলে।



Spread the love

Related Posts

Add Comment

error: Content is protected !!