স্বর্গ তুমি এই পৃথিবীতে

Reading Time: 2 minutes

‘মা’ মানব সভ্যতার ইতিহাসের শুরু থেকেই একটি গুরুত্বপূর্ণ শব্দ হিসেবে বিবেচিত। মা, আম্মু, মাদার- যাই বলি বা যে শব্দ দিয়েই ডাকি না কেন, একজন সন্তানের কাছে তার মায়ের চেয়ে অধিক প্রিয় কোন কিছু এই তামাম জাহানে আর নেই।

‘মা’ হচ্ছেন তিনিই, যিনি একজন পূর্ণাঙ্গ নারী। যিনি গর্ভধারন করেন, সন্তানকে পৃথিবীর আলো দেখান, শত দুঃখ কষ্টের মাঝেও সন্তানকে অসীম মমতা ও ভালবাসায় বড় করে তোলেন। সন্তানের যে কোন বিপদে নিজেকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করেন। একমাত্র ‘মা’ ই পারেন হাজার প্রতিকূল অবস্থায়ও সন্তানের পাশে এসে দাড়াতে। তাইতো বিখ্যাত সাহিত্যিক মার্ক টোয়েন বলেছেন-“মা কৃশকায় ও ছোট হলেও তার হৃদয় টা খুব বড়, এবং তা এতটাই বড় যে সবার আনন্দ ও বেদনা সেখানে জায়গা করে নিতে পারে”। একারনেই ভুবনের সবথেকে আদরমাখা শব্দ, সবথেকে মধুরতম শব্দ হলো ‘মা’। ‘মা’ শুধুমাত্র একটি শব্দই নয়, বরং প্রিয় অনুভূতি, প্রিয় ব্যক্তি, প্রিয় আবদার, প্রিয় খাবারের রাধুনী।

মায়ের অবদান শুধুমাত্র একজন সন্তান কিংবা একটি পরিবারের মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়। বরং একটি সুন্দর সমাজ, একটি উন্নত জাতি এবং একটি সমৃদ্ধ দেশ গঠনে একজন ‘মা’ এর অবদান অনস্বীকার্য। তাইতো বিখ্যাত ফরাসি নৃপতি নেপোলিয়ন বোনাপার্ট বলেছিলেন-“যদি তোমরা আমাকে একজন শিক্ষিত ‘মা’ দাও, আমি তোমাদের একটি শিক্ষিত জাতি দেব”।

ফরাসি বিপ্লবের এই সর্বাধিনায়ক নেপোলিয়ন বোনাপার্টের এরকম মানসিকতার মূলে ছিল তার ‘মা’ লেটিজিয়ার অসামান্য অবদান। তারই শিক্ষাগুণে নেপোলিয়নের চরিত্র হয়ে উঠেছিল উজ্জল এবং মহিমাময়।

একজন ‘মা’ এর বৈশিষ্টগুলো কীভাবে তার সন্তানের দেহে সঞ্চারিত হয় বিজ্ঞানের কল্যানে তা আজ আর আমাদের অজানা নয়। নিষেকের ১২ সপ্তাহ পরে মাতৃগর্ভে যে অমরা গঠিত হয় তার মাধ্যমেই মাতৃদেহ থেকে বিভিন্ন উপাদান যেমন- পুষ্টি, ভিটামিন এমনকি বিভিন্ন রোগ-জীবানুও পরিবাহিত হয়। সুতরাং একজন ‘মা’ তার সন্তানের জীবনে কতখানি গুরুত্ব বহন করে তা সহজেই এর মাধ্যমে অনুমান করা যায়।

আজ এতো আয়োজন করে পৃথিবীর হাজারো মায়েদের নিয়ে লেখার একটিই কারন, আজ মে মাসের দ্বিতীয় রবিবার। এই দিনটি বিশ্ব ‘মা’ দিবস হিসেবে সারা পৃথিবীতে পালিত হয়ে আসছে। যদিও আমরা আমাদের ‘মা’ কে সবসময় ভালবাসি, তবুও প্রতি বছর এই দিনটি আমাদের স্বরণ করিয়ে দেয় মায়েদের বিশেষ মর্যাদা এবং গুরুত্বের কথা। আসুন আমরা সবাই আজ হাতে হাত রেখে একই সুরে কন্ঠ মিলিয়ে বলি- “মা তোমায় বড্ড বেশি ভালবাসি”।

Spread the love

Related Posts

Add Comment

error: Content is protected !!